গণতান্ত্রিক শৃঙ্খলা পুনরুদ্ধারের সাথে সাথে বাংলাদেশের প্রেস আজ পুরোপুরি স্বাধীনতা পেয়েছে। ১৯৯৭ -৯৮ এর সময়কালে। দেশে এক হাজারেরও বেশি সংবাদপত্র ও সাময়িকী ছিল ২৮৬ টি দৈনিক, যা ১৯৯০ সালের তুলনামূলকভাবে তুলনায় অনেক বেশি। সংবাদপত্র ও সাময়িকীর মোট প্রচার ২ মিলিয়ন ছাড়িয়েছে। বাংলা এবং ইংরেজি উভয় ভাষার দৈনিক এবং সাময়িকীগুলি ব্যাপকভাবে পড়া হয়।

রাষ্ট্রায়ত্ত বাংলাদেশ সংঘ সংস্থা বাংলাদেশে1 বিদেশী এবং স্থানীয় সংবাদ সংস্থা কাজ করছে।

সরকারী বিভাগ যেমন প্রেস তথ্য বিভাগ। চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা বিভাগ। গণযোগাযোগ বিভাগ। বাংলাদেশ চলচ্চিত্রের সংরক্ষণাগার। ফিল্ম সেন্সর বোর্ড, প্রেস কাউন্সিল, প্রেস ইনস্টিটিউট, ফিল্ম ডেভলপমেন্ট কর্পোরেশন এবং ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ম্যাস কমিউনিকেশন হ’ল তথ্য মন্ত্রকের অঙ্গ যা সরকারের বিভিন্ন মিডিয়া সম্পর্কিত কার্যক্রম পরিচালনা করে।

রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বাংলাদেশ বেতারের (রেডিও) একটি ১০ ​​টি আঞ্চলিক স্টেশন সহ একটি দেশব্যাপী নেটওয়ার্ক রয়েছে। বেতারের বাহ্যিক পরিষেবাটি ইউরোপের দিকে মনোহর। ৭ টি ভাষায় মধ্য প্রাচ্য, পাকিস্তান, ভারত এবং নেপাল।

বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি) ১৯৬৪ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে দ্রুত প্রসার লাভ করেছে। ঢাকা ও চাটগ্রামে এর দুটি স্টেশন এবং সারা দেশে ১১ টি রিলে স্টেশন রয়েছে। বিটিভি ইতিমধ্যে বেসরকারী খাতের অপারেটরদের জন্য একটি দ্বিতীয় চ্যানেল কমিশন করেছে। সরকার অনুসারে স্যাটেলাইটের মাধ্যমে বিদেশী টেলিভিশন প্রোগ্রামগুলি গ্রহণের জন্য তথ্যের অবাধ প্রবাহের নীতি, ডিশ অ্যান্টেনার বিনামূল্যে ব্যবহারের অনুমতি রয়েছে।