আর্টের সমৃদ্ধ ঐতিহ্য রয়েছে বাংলাদেশের। প্রাচীন টেরাকোটা এবং মৃৎশিল্পের নমুনাগুলি লক্ষণীয় শৈল্পিকতার প্রদর্শন করে। জয়নুল আবেদীন, কামরুল হাসানের মতো শিল্পীদের দ্বারা আধুনিক চিত্রকলার সূচনা হয়েছিল। আনোয়ারুল হক, শফিউদ্দিন অহনিদ, শফিকুল আমিন, রশিদ চৌধুরী ও এসএম। সুলতান। জয়নুল আহেদিন ১৯৪৩ সালে বেঙ্গল ফ্যামিনের অত্যাশ্চর্য স্কেচ দ্বারা বিশ্বব্যাপী খ্যাতি অর্জন করেছিলেন।

বাংলাদেশের অন্যান্য বিখ্যাত শিল্পীরা হলেন- আবদুর রাজ্জাক, কাইয়ুম চৌধুরী, মুর্তজা বাসির, আমিনুল ইসলাম, দেবদাস চক্রবর্তী, কাজী আবদুল বাসেত, সৈয়দ জাহাঙ্গীর, এবং মোহাম্মদ কিবরিয়া

বাংলা সাহিত্যের প্রাচীনতম উপলব্ধ নমুনাটি প্রায় এক হাজার বছরের পুরানো। মধ্যযুগের সময়কালে। মুসলিম শাসকদের পৃষ্ঠপোষকতায় বাঙালি সাহিত্যের যথেষ্ট বিকাশ ঘটে। চণ্ডী দাস, দৌলত কাজী ও আলাওল এ সময়ের বিখ্যাত কবিরা। আধুনিক বাংলা সাহিত্যের যুগ ঊনবিংশ শতাব্দীর শেষের দিকে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর থেকে শুরু হয়েছিল, নোবেল বিজয়ী বাঙালি সংস্কৃতির এক গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ। কাজী নজরুল ইসলাম, মাইকেল মধুসূদন দত্ত। শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়, বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়, মীর মোশারফ হোসেন এবং কাজী আহদুল ওয়াদুদ আধুনিক বাংলা সাহিত্যের প্রবর্তক।