জাতীয় সংসদ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সর্বোচ্চ আইনসভা। সংসদ বা জাতীয় সংসদে ৩৫০ টি আসন রয়েছে, এর মধ্যে ৫০ টি আসন দেশের সংশ্লিষ্ট মহিলাদের জন্য সংরক্ষিত রয়েছে। তিন শতাধিক সদস্য জনসাধারণের ভোট সরাসরি নির্বাচিত হন এবং সংরক্ষিত আসনের ৫০ জন নারী সদস্যগণ নির্বাচিত ৩০০ সংসদ সদস্যের ভোটে নির্বাচিত হন। সংসদের মেয়াদ পাঁচ বছর।

সংসদ একটি পৃথক সচিবালয়ের একটি সার্বভৌম সংস্থা। স্পিকার এবং ডেপুটি স্পিকার সহ হুইপস এবং চেয়ারম্যানদের প্যানেল সংসদের অধিবেশন পরিচালনা করেন।

জাতীয় সংসদ ভবন

বাংলাদেশের জাতীয় সংসদ ভবন পৃথিবীর একটি অন্যতম দৃষ্টিনন্দন আইনসভা ভবনের একটি। রাজধানী ঢাকার শের-ই-বাংলা নগরে অবস্থিত জাতীয় সংসদ ভবন এলাকার আয়তন ২১৫ একর। যেখানে মূল ভবনের পাশাপাশি রয়েছে উন্মুক্ত সবুজ পরিসর, মনোরম জলাধার ও সংসদ সদস্যদের কার্যালয়।

ভবনের নির্মাণ কাজ সর্বপ্রথম শুরু হয় ১৯৬১। অনেক চড়াই উৎরাই পেরিয়ে ২৮ জানুয়ারি ১৯৮২ সালে সংসদ ভবনটি উদ্বোধন করা হয়। যুক্তরাষ্ট্রের প্রখ্যাত স্থপতি লুই আই কান দৃষ্টিনন্দন এ ভবনের নকশা করেছেন। সংসদ ভবন এলাকাকে মূলত তিনটি অংশে ভাগ করা হয়েছে যা হল: প্রধান ভবন, দক্ষিণ প্লাজা ও প্রেসিডেন্সিয়াল প্লাজা।

সংসদের সদস্য পদ

বাংলাদেশের সংবিধানের ৬৬ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী, জাতীয় সংসদের সদস্য হিসেবে নির্বাচিত প্রার্থীকে অবশই বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে এবং তার বয়স অবশই ২৫ বছরের ঊর্ধ্বে হতে হবে। এছাড়া অপ্রকৃতিস্থ, দেউলিয়া কিংবা দ্বৈত নাগরিকত্ব এক্ষেত্রে প্রার্থীর অযোগ্যতা বলে বিবেচিত হবে।

জাতীয় সংসদের সদস্যরা তাদের নিজ নিজ আসনে সরাসরি নির্বাচন সাধারণ জনগণের প্রতক্ষ ভোটার মাধ্যমে অধিকাংশের ভোটে নির্বাচিত হন। সদস্যগন সংসদ সদস্য হিসেবে ৫ বছর মেয়াদের জন্য নির্বাচিত হন। তারা নিরপেক্ষ বা একটি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে অধিভুক্ত হয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারেন।