খেলাধুলা

ঋষভ ও শার্দূলে মুগ্ধ সৌরভ – sourav ganguly

ঋষভ ও শার্দূলে মুগ্ধ সৌরভ – sourav ganguly
23views

 

হাইলাইটস

  • ঋষভ পন্থ যে তাঁর অন্যতম প্রিয় ক্রিকেটার, সেটা বারেবারেই বুঝিয়ে দিয়েছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।
  • এ বার নিজের প্রিয় টিম বাছতে বসে সেই ঋষভকে প্রশংসায় ভরালেন।
  • প্রশংসা করলেন শার্দূল ঠাকুরের সাহসেরও।

এই সময়: ঋষভ পন্থ যে তাঁর অন্যতম প্রিয় ক্রিকেটার, সেটা বারেবারেই বুঝিয়ে দিয়েছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। এ বার নিজের প্রিয় টিম বাছতে বসে সেই ঋষভকে প্রশংসায় ভরালেন। প্রশংসা করলেন শার্দূল ঠাকুরের সাহসেরও।

একটি বানিজ্যিক সংস্থার চ্যাট শো-তে বোর্ড প্রেসিডেন্টের কাছে নানা প্রশ্ন রাখছিলেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। সেখানেই একজন জানতে চান, ভারতের এই সাম্প্রতিক টিমের মধ্যে থেকে যদি সেরা ক্রিকেটারদের বেছে নিতে হয়, তা হলে কাদের বাছবেন? তার উত্তরেই সৌরভ বলেন, ‘বোর্ড প্রেসিডেন্ট হিসেবে আমি বিশেষ কারও নাম বলতে পারি না। আমার কাছে সবাই ভালো ক্রিকেটার। সবাই আমার প্রিয়। তবে, বিরাট কোহলি আর রোহিত শর্মার ব্যাটিং আমি খুব উপভোগ করি। অবশ্যই ঋষভ পন্থের কথা বলতে হবে। আমি মনে করি, ঋষভ প্রকৃত ম্যাচ উইনার। বোলিংয়ের ক্ষেত্রে জশপ্রীত বুমরার সঙ্গে মহম্মদ সামির নামও করব।’

এরপরেই তরুণ ক্রিকেটার শার্দূল ঠাকুরের নাম করেন সৌরভ। বলেন, ‘শার্দূলকে আমার বেশ ভালো লাগছে। ওর মধ্যে অসম্ভব সাহস আছে। বড় পর্যায়ে কী ভাবে খেলতে হয়, সেটা ও জানে।’

বোর্ড প্রেসিডেন্ট হওয়ার আগে আইপিএলে দিল্লি ক্যাপিট্যালসের মেন্টর ছিলেন সৌরভ। কিছুদিন আগে অসুস্থ হয়েছিলেন সৌরভ। এ দিন তিনি বলেন, ‘আমি এখন ফিট। কাজেও ফিরেছি।’

এ দিনের চ্যাট শো-তে ছাত্র-ছাত্রীদের নানা পরামর্শ দেন সৌরভ। বলেন, ‘আত্মবিশ্বাসই আসল। কখনও পারব না, এটা ভাববে না। ব্যর্থতা সবার জীবনে আসে। বিশ্বে এমন একজনও নেই, যিনি বলতে পারবেন, আমি কোনওদিন ব্যর্থ হইনি। সচিনের মতো কিংবদন্তিকেও এই সময়ের মধ্য দিয়ে যেতে হয়েছে। ব্যর্থতাই সাফল্যের পথ দেখায়। জীবনের চ্যালেঞ্জটা নিতে হবে সবাইকে।’

নিজের উদাহরণ টেনে এনে সৌরভ বলেন, ‘১৯৯২ সালে যখন সুযোগ পেয়ে বাদ পড়ি জাতীয় টিম থেকে, সেটাই আমায় শিক্ষা দিয়েছিল এগিয়ে যাওয়ার। ওই ধাক্কা আমায় বুঝিয়েছিল, আন্তর্জাতিক পর্যায়ে কী ভাবে তৈরি হতে হয়।’

Source link